ঈশ্বরদীর মেয়ে পালিয়ে বিয়ের পর লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলো

দৈনিক পাবনা

ঈশ্বরদীর মেয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় বিয়ের পর লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলো। মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে ভেড়ামারা কুচিয়ামোড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ঈশ্বরদী পৌর এলাকার পিয়ারপুরের মৃত্যু আকাইল হোসেনের মেয়ে সাহিদা খাতুন (১৯) গত দুই মাস পূর্বে ভেড়ামারার কুচিয়ামোড়া গ্রামের সোহেল (২৬) নামের এক ছেলের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে।

পালিয়ে বিয়ে করার পর থেকেই সাহিদার পরিবারের সঙ্গে তার আর কোন যোগাযোগ ছিল না। মঙ্গলবার দুপুরে হঠাৎ খবর আসে সাহিদা তার শ্বশুর বাড়িতে মারা গেছে। খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন তার লাশ নিয়ে ঈশ্বরদীর পিয়ারপুরে নিয়ে আসে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, শ্বশুর বাড়ির লোকজন সাহিদা আত্নহত্যা করে মারা গেছে বললেও তার সমস্ত শরীরে আঘাতের স্পষ্ট চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে তার স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির মানুষ পিটিয়ে হত্যা করে আত্নহত্যা বলে প্রচার করছে।
জানা যায়, লাশের ময়না তদন্তের প্রস্তুতি চলছে।

ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেখ নাসীর উদ্দিন বলেন, লোকমুখে ঘটনাটি শুনেছি। এখনো নিহতের পরিবারের থেকে কেউ লিখিত কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *