জীবন বাঁচাতে সেফটি মানুন, নিরাপদে বাড়ি ফিরুন।

The daily Pabna

আমরা অনেকেই, অনেক সময়, ৫/১০ মিনিট সময় বাচাতে আনসেফে কাজ করে থাকি। কিন্তু আমরা জানিনা একটু ভুলে আমাদের কত বড় বিপদ হতে পারে।

একটা ঘটনা বলি, সাল ২০১৪, বংককের একটি কনস্ট্রাকশন সাইটে ক্রেন মেন্টিনেন্স কোম্পানিতে কাজ করতো একজন বাংলাদেশি ভাই, মাকান/লান্স টাইমের কয়েক মিনিট আগে, কাজ করছিল মাটি থেকে প্রায় ৫০/৬০ মিটার উপরে। আর একটি মাত্র নাট টাইট দিলে, মাকানের আগে তার কাজ শেষ। ঝিরিঝিরি বৃষ্টি হচ্ছিল, সে হারনেসের হুক খুলে, নাট’টি টাইট দিতে সামনে অগ্রসর হয়। অলসতা’বসত সে আর হারনেসটি হুক করেনি, হয়তো ভেবেছিল, এ আর এমন কি, একটি নাট টাইট দিতে আর হুক করার কি প্রয়োজন। দুর্ভাগ্য ক্রমে পা পিছলে ভাইটি, ৫০/৬০ মিটার উপর থেকে দু’তলা কার পার্কের ইস্কাফোল্ডিং পাইপে বাড়ি খেয়ে নিচে পরে এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

হারনেসটি হুক করতে কত সময় লাগে, বড়জোর ১০ সেকেন্ড। ১০ সেকেন্ড সময় বাঁচাতে, নিজের জীবনটাই হাড়িয়ে গেলো। জীবনের চাইতে নিশ্চয় ৫/১০ মিনিট সময়ের মূল্য বেশি নয়।

আপনার উপর যদি আপনার ফ্যামিলি নির্ভরশীল হয়, তবে আপনাকে কাজের সেফটি সম্পর্কে দিগুন সতর্ক হতে হবে। একটু ভুলে, ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। বিশেষ করে যারা উচ্চতায় কাজ করেন, রোফটপ/ছাদে কাজ করেন, তাদের এক্সিডেন্ট, ইন্সিডেন্ট এর ঝুকি বেশি।

যে, যে কাজই করেন, অবশ্যই সেফটিকে প্রাধান্য দিন। কাজের আগে কাজের সেফটি সম্পর্কে জানুন, কোন ম্যাশিনারি কিভাবে অপারেট করতে হয় জানুন।

প্রচন্ড গরমে, হিটস্ট্রোক থেকে বাঁচতে, পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

নিরাপদে কাজ করুন, সর্বদা নিরাপদ থাকুন এবং নিরাপদে বাড়ি ফিরুন। কারন, আপনার জন্য প্রতিনিয়ত অপেক্ষায় থাকে, আপনার মা, বাবা, স্ত্রী, সন্তান, ভাই, বোন এবং আত্বিয়স্বজন। তাদের সমস্ত স্বপ্নগুলো আপনাকে ঘিরেই, আর আপনার উছিলাতেই নির্ভরশীল তাদের বর্তমান এবং ভবিশ্যত।

সুমন সিকদার,
সিঙ্গাপুর প্রবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *