নাটোরের গুরুদাসপুরে মাজার শরীফের অর্থআত্মসাত ও গাছ কাটা অভিযোগ সাবেক খাদেমের বিরুদ্ধে

নাটোর প্রতিনিধি.
নাটোরের গুরুদাসপুরে পীরপাল মাজার শরীফের (ওয়াক্ফা স্টেট) অর্থ আত্মাসত ও মাজার শরিফের গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছে সাবেক খাদেম আব্দুল মোত্তালেবের বিরুদ্ধে। এঘটনায় অভিযুক্ত খাদেমের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওই কমিটির সাধারন সম্পাদক মো. রেজাউল করিম।

উপজেলার খুবজীপুর ইউনিয়নের কালাকান্দর গ্রামের বাসিন্দা রফাতুল্লাহ আল কাদ্রী জীবদ্দশায় ১৯৮৬ সালে মাজার শরীফের নামে ১৪ শতক জায়গা রেজিষ্ট্রিমুলে (ওয়াক্ফা) করেন। তখন থেকেই আব্দুল মোত্তালেব ওরফে আজিজ খাদেমের দায়িত্ব পালন করেন। সেখানা নানা প্রজাতির গাছ রোপন করা হয়।
১৯৮৮ সালে মারা যান রফাতুল্লাহ আল কাদ্রী। দানের জায়গায় গড়ে ওঠে মাজার শরীফ। অভিযুক্ত খাদেম মোত্তালেব ২০০৬ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালনের সময় মাজারের ২ লাখ টাকা আত্মসাত করেন। সর্বশেষ গত পহেলা জুলাই পুরনো একটি দেবদারু গাছ কেটে নিয়ে যান।
টাকা আত্মাসতের ঘটনা নিয়ে মাজার পরিচালনা কমিটির পক্ষ থেকে খুবজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শরীফুল ইসলাম এ নিয়ে শালিস বৈঠক করেন। শালিসে অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় অভিযুক্ত হয়েছিলেন খাদেম মোত্তালেব। সেই টাকা ফেরত দেওয়ার কথা থাকলেও এখনো তা দেননি। উপরন্ত মাজার শরীফের গাছ কেটে নিয়ে গেছেন সাবেক খাদেম মোত্তালেব।
গাছ কাটার বিষয় নিয়ে প্রতিবাদ ও আত্মসাতের ২ লাখ টাকা মাজার কমিটির কাছে হস্তান্তরের দাবী জানানোয় নানাভাবে হয়রানী ও ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বর্তমান কমিটির সাধারন সম্পাদক মো. রেজাউল করিম।
টাকা আত্মসাত ও গাছ কাটার অভিযোগ প্রসঙ্গে মাজার কমিটির সাবেক খাদেম মোত্তালেব হোসেন ওরফে আজিজ দাবী করেন মাজার শরীফের উন্নয়নে ২ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। মাজারের শ্রীবৃদ্ধির জন্য গাছটি কেটে তার বাড়ির পাশে রাখা হয়েছ।

মোঃ রাশেদুল ইসলাম
নাটোর
১৩.০৭.২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *