পলিটেকনিক এর নতুন ভর্তি নীতিমালা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন পাবনা পলিটেকনিক শিক্ষার্থী ও পাবনা স্টুডেন্ট’স এ্যাসোসিয়েশনেরর নেতৃবৃন্দ

এম এইচ অনিকঃ
করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। গত প্রায় চারমাস ধরে ক্লাস-পরীক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর অনেকের শিক্ষা জীবনে ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিচ্ছে। এ সময়ে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তিচ্ছুদের জন্য নতুন প্রকাশিত ভর্তি নীতিমালা আত্মঘাতী বলে দাবি করছেন পাবনা পলিটেকনিক ইন্সটিউটের সাধারণ শিক্ষার্থী ও পাবনা স্টুডেন্ট’স এ্যাসোসিয়েশন।

নতুন ভর্তি নীতিমালার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সরব রয়েছেন। তারা দাবী করছেন, ‘করোনা সংকটের এই মুহূর্তে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের নতুন ভর্তি নীতিমালা প্রকাশ একটি আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত। একইসঙ্গে এই নীতিমালা অনুমোদন দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি অদূরদর্শীতার পরিচয় দিয়েছেন।’

শিক্ষার্থীরা এই সিদ্ধান্তকে প্রত্যাখান করছেন। একইসঙ্গে অবিলম্বে নতুন প্রকাশিত ভর্তি নীতিমালা বাতিল ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন তারা। এমনকি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এই সিদ্ধান্তের জন্য শিক্ষামন্ত্রীর সমালোচনা করছেন সাধারণ শিক্ষার্থী ও পাবনা স্টুডেন্ট’স এ্যাসোসিয়েশন নেতৃবৃন্দ।

এছাড়া প্রকাশিত নতুন নীতিমালাকে অবিলম্বে প্রত্যাহার না করলে আন্দোলনেরও হুশিয়ারি দিয়েছেন পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা। তারা জানান, এই নীতিমালা বাতিল করা না হলে বাংলাদেশের সকল সরকারি-বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

পাবনা স্টুডেন্ট’স এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদাক শ্রী জীবন কুমার সরকার জানান,
এটা আমাদের জন্য খুবই কটূক্তিমূলক ব্যাপার। হঠাৎ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ভর্তি নীতিমালা পরিবর্তনকে আমরা আমাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে সহমত জ্ঞাপন করতে পারছি না। মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন, আপনার এই সিদ্ধান্তকে পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শিক্ষার্থীরা মানতে পারছেন না। আমরাও শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে আপনার মতামতকে প্রত্যাখান করছি। আশা করছি, আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনি আপনার সিদ্ধান্ত তুলে নিবেন।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সাংগঠনিক সম্পাদক এম এইচ অনিক বলেন, পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার পক্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির এই মতামতকে অযোগ্য বলে দাবি করছি। সেই সাথে আমরা তার এই পদক্ষেপকে তুলে নিবার জন্য বিশেষ অনুরোধ করছি। আমরা চাই তার এই পদক্ষেপকে সুন্দর পরিবেশের মাধ্যমে উঠিয়ে নেয়া হোক, কারণ আমরা চাই না দেশের এই ক্রান্তিলগ্ন মহামারি অবস্থায় আমরা পাবনা পলিটেকনিক ইন্সটিউট এবং সংগঠনের পক্ষ থেকে আমরা আবার রাজপথে অান্দোলন করি।

সংগঠনের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদাক আবির আরহাম আরো জানান, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর ভর্তি কমিটির সুপারিশ এবং অংশীজনদের মতামত সম্পূর্ন আগ্রাহ্য করে টিএমইডি কর্তৃক সরকারি পলিটেকনিক এর ২০২০-২০২১ শিক্ষা বর্ষের ভর্তি নীতিমালা আত্মঘাতি সিদ্ধান্তের পরিবর্তে ভর্তি কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী ভর্তি নীতিমালা প্রণয়ন ও ভর্তি কার্যক্রম শুরু করার আহ্বান জানিয়েছেন ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি)।

আইডিইবি এর এই সময় উপযোগী পদক্ষেপকে আমরা ব্যক্তিগতভাবে পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীসহ পাবনা স্টুডেন্ট’স এ্যাসোসিয়েশনের পরিবার পক্ষ থেকে সাধুবাদ জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *