পাওনা পরিশোধ না করে রুপপূর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের গ্রিন সিটির পিছন এলাকার জনবসতি উচ্ছেদ!

বিনা নোটিশে ও ন্যায্য পাওনা পরিশোধ না করে রুপপূর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের গ্রিন সিটির পিছন এলাকার জনবসতি উচ্ছেদ!

গতকাল শুক্রবার আকস্মিক ভাবে সরকার দলীয় স্থানীয় মাস্তান বাহিনী ও প্রশাসনের লোকজনকে ব্যবহার করে বলপূর্বক উচ্ছেদ অভিযান শুরু করায় –
রুপপুর, নতুন রুপপুর, দিয়াড় বাঘইল, বাঘইলের প্রায় ২০ হাজার মানুষ ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ হওয়ার আতংকে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছন।

আমজনতা সূত্রের তথ্যে প্রকাশ, গ্রিন সিটির পিছনে পাকশী দাশুড়িয়া মহাসড়ক সংলগ্ন নতুন হাট মোড় হতে মানিকনগর পাঠশালা মোড় পর্যন্ত অধিগ্রহণ পরিকল্পনার –
ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রায় দেড়শ বিঘা জমির উপর বসবাসকারী শতাাধিক পরিবারের কাউকেই অদ্যাবধি ক্ষতিপূরণের ন্যায্য পাওনা পরিশোধ করা হয়নি।

সেখানে বসবাসরত পরিবার গুলো জমির বর্তমান বাজার মূল্য ও বাড়ী ঘরের ক্ষতিগ্রস্থতার ন্যায্য পাওনা প্রশাসনের কাছে দাবি করে আসছিলেন। প্রশাসনের তরফ থেকেও ন্যায্য পাওনা সঠিক ভাবে নির্ধারণের আশ্বাসের পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্তদের যত্সামান্য অর্থ দিয়ে বলা হয়েছিল উচ্ছেদ নোটিশের পূর্বেই সবাইকে ন্যায্য পাওনা বুঝে দেওয়া হবে।

কিন্তু গতকাল শুক্রবার সকালে কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই আকস্মিক ভাবে সরকার দলীয় স্থানীয় মাস্তান বাহিনী ও প্রশাসনের বিপুলসংখ্যক লোকজন বলপূর্বক পাওনা বঞ্চিত বসতিদের বাড়ি ঘর ভেঙে গুড়িয়ে সবাইকে উচ্ছেদ করেছে।

আমজনতার তথ্যে আরও প্রকাশ, বসতিদের বর্তমান বাজারদরের ক্ষতিগ্রস্থতার ন্যায্য পাওনার পুরো অর্থ সরকারি কোষাগার থেকে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা তুলে নেওয়ার পর সিংহভাগ অর্থ তারা সরকার দলীয় স্থানীয় প্রভাবশালী নেতাদের সাথে ভাগবাটোয়ারা করে হজম করেছেন –
ক্ষতিগ্রস্তদের যত্সামান্য অর্থ পরিশোধের পর তারা মুলতঃ এতদিন তাদেরকে ধোকার মাঝে রেখেছিলেন এবং চতুরতার কৌশল অবলম্বন করে আকস্মিক ভাবে হামলার মধ্যদিয়ে সবাইকে উচ্ছেদ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *