পাবনায় মধ্যরাতে দুর্বিত্তদের হামলায় নারীকে কুপিয়ে জখম

দৈনিক পাবনা : পাবনার আতাইকুলা থানার অন্তর্গত সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন এর তেলিগ্রাম (ঢালিপাড়া) গ্রামের এক নারীকে মধ্যরাতে কুপিয়ে জখম করেছে দূর্বিত্তরা। এই নির্মম ঘটনার স্বিকার নারী মালয়েশিয়া প্রবাসী মোঃ শামীম প্রাং (২৫) এর স্ত্রী মোছাঃ টুম্পা খাতুন (২৪)। কুপিয়ে তার দুই হাত কব্জি থেকে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে৷

বুধবার (৮ জুলাই) দিবাগত রাতে নিজ বাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে টুম্পা খাতুনের শিশু মেয়ের চিৎকারে এলাকাবাসী ঘটনাটি জানতে পারে৷ তৎক্ষনাৎ ঘটনাস্থলে শত শত লোকের জমায়েত হয়। তবে, অনেকক্ষন হয়ে গেলেও হামলার স্বিকার নারীকে হাসপাতালে নেওয়া কিংবা কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। পরে স্থানীয় মানবিক বোধ সম্পন্ন কিছু যুবক এবং ইউপি সদস্য আক্কাস আলীর সহায়তায় তাকে পাবনা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।

অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে ডাক্তারগণ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। তৎক্ষনাৎ তাকে নিয়ে ঢাকা রওয়ানা দেওয়া হয়েছে।

তবে, আতাইকুলা থানায় যোগাযোগ করে জানা যায় এই ঘটনার ব্যাপারে তারা অবগত নন। তবে, উপযুক্ত প্রমানাদি সংগ্রহের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ঘটনার স্বিকার টুম্পা খাতুন নেত্রকোণার মেয়ে। বছর পাঁচেক আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে পাবনা সদর উপজেলার সাদুল্লাপুর ইউনিয়ন এর অন্তর্গত তেলিগ্রাম (ঢালিপাড়া) গ্রামের মোঃ রফিক প্রামানিক এর প্রথম পুত্র শামীম হোসেন এর সাথে পরিচয় হয় তার। পরিচয়ের কিছু দিনের মধ্যে প্রেম এবং পরে তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। নিজের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতির জন্য শামীম দেড় বছর হলো মালয়েশিয়া প্রবাস যাপন করছেন। টুম্পা খাতুন তার শিশু সন্তানকে নিয়ে একাই বাড়িতে থাকতেন।

উক্ত ঘটনায় কারা জরিত এখন পর্যন্ত তা জানা জায়নি। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি কামনা করেন এলাকাবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *