পাবনার সুজানগরে অবাধে অতিথি পাখি নিধন করা নিয়ে বেস্ত শিকারিরা

পাবনার সুজানগরে অবাধে অতিথি পাখি নিধন করা হচ্ছে। এক শ্রেণির অসাধু পেশাজীবী পাখি শিকারীসহ কতিপয় শৌখিন শিকারীরা ওই পাখি নিধন করছেন। প্রতিবছর শীতের মৌসুমে সুদূর সাইবেরিয়াসহ পৃথিবীর বিভিন্ন শীতপ্রধান দেশ থেকে রাজহাঁস, চখা, পানকওরী, পাতিহাঁস ও কাজলাদিঘিসহ বিভিন্ন জাতের অতিথি পাখি একটু নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য ছুটে আসে উপজেলার ঐতিহ্যবাহী গাজনার বিলসহ পদ্মার চরাঞ্চলে।

এ বছরও শীতের শুরুতেই ওই সকল পাখি গাজনার বিল ও পদ্মার চরাঞ্চলসহ আশপাশের বিলে আশ্রয় নিয়েছে। বিলপাড়ের শারীরভিটা গ্রামের বাসিন্দা বাদশা শেখ জানান, মাঝেমধ্যেই পেশাজীবী শিকারীরা বিলে কারেন্ট জালের ফাঁদ পেতে নির্বিঘেœ অতিথি পাখি শিকার করছেন।

শিকারীরা কখনও দিনে আবার কখনও রাতে ওই সকল পাখি শিকার করে স্থানীয় হাট-বাজারে বিক্রি করে থাকেন। সেই সঙ্গে শৌখিন শিকারীরাও মাঝেমধ্যে তাদের বৈধ বন্দুক দিয়ে বিল ও চরাঞ্চল থেকে অতিথি পাখি শিকার করছেন। শৌখিন শিকারি অতিথি পাখির পাশাপাশি গ্রাম-গঞ্জে ঘুরে দেশি পাখিও শিকার করে থাকেন।

উপজেলার রানীনগর ইউপি চেয়ারম্যান জিএম তৌফিকুল আলম পিযুষ বলেন, সরকারিভাবে অতিথি পাখি শিকার এবং বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। প্রশাসন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিলে পাখি নিধন বন্ধ হয়ে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজিৎ দেবনাথ বলেন, পাখি শিকারীদের ব্যাপারে প্রশাসনের নজরদারি রয়েছে। ইতঃপূর্বে একজন শিকারীকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয় বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *