পাবনায় জামাই এর বাড়িতে বেড়াতে এসে ট্রেনে কাঁটা পরে শশুড় এর মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
দ্যা ডেইলি পাবনা ডটকম
ঈশ্বরদীতে জামাই বাড়িতে বেড়াতে এসে ট্রেনে কাটা পড়ে মৃত্যু হয়েছে এক সবজী ব্যবসায়ীর। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার (১৫ জুন) বিকেলে ঈশ্বরদী-পাকশী রেল লাইনের মাঝামাঝি বাঘইল দোতলা সাঁকোর উপর। নিহত ওই ব্যবসায়ীর নাম রিয়াজুল সরদার (৫৩)। তিনি ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের বাবুলচারা গ্রামের মৃত রেজান সরদারের ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, নিহত রিয়াজুল পাকশীর বাঘইল কলপাড়ায় ভাগ্নি জামাই আব্দুর রশিদের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে ঈশ্বরদী শহরে আসে। ঈশ্বরদী থেকে রেললাইনের উপর দিয়ে হেটে জামাই বাড়িতে আসার পথে পিছন থেকে রাজশাহী থেকে খুলনাগামী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

নিহত রিয়াজুলের ছেলে সবুজ জানায়, তার বোনের বিয়ের কথাবার্তা বলার জন্য তার বাবা ফুফাতো দুলাভাই আব্দুর রশিদের বাড়িতে যাওয়ার কথা ছিল। ইতিপূর্বে প্রতিবেশীদের সাথে বিবাদের সময় সে মাথায় মারাত্মক আঘাত পেয়ে দীর্ঘদিন আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মাঝে মধ্যেই তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানা (জিআরপি) পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই আমিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে, নিহতের কাছে থাকা নগদ ৮০৩০ টাকা ও একটি ভাঙ্গা মোবাইল পাওয়া গেছে। আগামীকাল লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে জমা দেওয়া হবে।মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার (১৫ জুন) বিকেলে ঈশ্বরদী-পাকশী রেল লাইনের মাঝামাঝি বাঘইল দোতলা সাঁকোর উপর। নিহত ওই ব্যবসায়ীর নাম রিয়াজুল সরদার (৫৩)। তিনি ঈশ্বরদীর সাহাপুর ইউনিয়নের বাবুলচারা গ্রামের মৃত রেজান সরদারের ছেলে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, নিহত রিয়াজুল পাকশীর বাঘইল কলপাড়ায় ভাগ্নি জামাই আব্দুর রশিদের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে ঈশ্বরদী শহরে আসে। ঈশ্বরদী থেকে রেললাইনের উপর দিয়ে হেটে জামাই বাড়িতে আসার পথে পিছন থেকে রাজশাহী থেকে খুলনাগামী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে মর্মান্তিক মৃত্যু হয়।

নিহত রিয়াজুলের ছেলে সবুজ জানায়, তার বোনের বিয়ের কথাবার্তা বলার জন্য তার বাবা ফুফাতো দুলাভাই আব্দুর রশিদের বাড়িতে যাওয়ার কথা ছিল। ইতিপূর্বে প্রতিবেশীদের সাথে বিবাদের সময় সে মাথায় মারাত্মক আঘাত পেয়ে দীর্ঘদিন আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মাঝে মধ্যেই তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়।

ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানা (জিআরপি) পুলিশের সেকেন্ড অফিসার এসআই আমিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে, নিহতের কাছে থাকা নগদ ৮০৩০ টাকা ও একটি ভাঙ্গা মোবাইল পাওয়া গেছে। আগামীকাল লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে জমা দেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *