বাগাতিপাড়ায় পুলিশি হস্থক্ষেপে বাল্য বিয়ে বন্ধ

নাটোর প্রতিনিধি:
নাটোরের বাগাতিপাড়া থানা পুলিশের হস্থক্ষেপে বন্ধ হলো এক স্কুল শিক্ষার্থীর বাল্য বিয়ে।  সোমবার দুপুরে গোপন সংবাদ পেয়ে এই বিয়ে বন্ধ করেন পুলিশ। এই শিক্ষার্থী সাইল কোনা বালিকা বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী ও ফাঁগুয়াড়দিয়াড় ইউনিয়নের স্বরুপপুর গ্রামের সিরাজের মেয়ে। জানা যায় ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া ওই শিক্ষার্থীর বিয়ে ঠিক করেন একই উপজেলার পার্শবর্তী মাধববাড়িয়া গ্রামের রবিউলের সাথে। সেই মোতাবেক সোমবার দুপুরে বিয়ে আয়োজন সম্পন্ন করেন পরিবারের সদস্যরা। বাল্য বিয়ের সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশ বিয়ের আয়োজন স্থলে জান। সেখানে মেয়ের জন্ম নিবন্ধন দেখে পুলিশ জানতে পারে মেয়েটির বয়স ১৩ বছর। তাৎক্ষনিক পুলিশ উপস্থিত থেকে বিয়ে বন্ধ করেন এবং মেয়ের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার পরামর্শ দেন। এছাড়া বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে সকলকে সচেতন করেন।
বাগাতিপাড়া মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ নাজমুল হক বলেন, খবর পেয়ে বাল্য বিয়ের আয়োজন স্থলে পুলিশ সদস্য পাঠিয়ে বিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। আইন অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে,এছাড়া ওই শিক্ষার্থীর বিয়ের বয়স না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেয়ার পরামর্শ দেয়া হয় এবং  বিয়ের কুফল সম্পর্কে সকলকে সচেতন করা হয়।
মোঃ রাশেদুল ইসলাম
নাটোর
তাং-১২-১০-২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *