বিয়েতে রাজি না হওয়ায় বকাবকি, নিজ ঘরে কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা সাঁড়া ইউনিয়নের শিমুলতলা গ্রামের নিজ ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায় এক কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
ফারজানা আক্তার (১৯) নামে ওই ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

তিনি ঈশ্বরদী মহিলা কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের ছাত্রী ছিলেন। তার বাবা জাহাঙ্গীর ফকির মালয়েশিয়া প্রবাসী।

পুলিশ ও ছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বাবা-মা বিয়ে দিতে চাইলে ফারজানা এতে রাজি না হয়ে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। এ সময় বাড়ির লোকজন তাকে বকাবকি করেন। এরপর তিনি নিজ ঘরে গিয়ে দরজা লাগিয়ে দেন।

দীর্ঘ সময় তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে পরিবারের লোকজন জানালা ভেঙে কক্ষে প্রবেশ করেন। এ সময় তারা সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ফারজানার লাশ ঝুলে থাকতে দেখেন।

নিহতের মা ময়না বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘তার মেয়ে পড়াশোনা করতে চেয়েছিল। এখন সে বিয়ের প্রস্তাবে রাজি ছিল না, কিন্তু বিভিন্ন জায়গা থেকে তার বিয়ের প্রস্তাব আসছিল। সোমবার তার বাবা বিদেশ থেকে তাকে একটু শাসন করেছে। রাতেও সে স্বাভাবিক ছিল। কিন্তু কেন এমন হল কিছু বুঝতে পারছি না।’

সহপাঠী তিন্নি খাতুন বলেন, ‘তার স্বভাব অন্য ৮-১০টা মেয়ের মতো ছিল না। সে মিষ্টভাষী পরহেজগার স্বভাবের ছিল। কলেজে গিয়ে সে আমাদের নামাজ আদায় করতে বলত।’

ঈশ্বরদী থানার ওসি বাহাউদ্দীন ফারুকী বলেন, লাশের গলার নিচে ফাঁসের দাগ রয়েছে। তবে শরীরের কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

ওসি আরও বলেন, এ ব্যাপারে একটি ইউডি মামলা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *