লাঞ্চলে নৌযান দুর্ঘটনা এড়াতে ভাঙ্গুড়ায় পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সতর্কীকরণ

ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধিঃ পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভাঙ্গুড়া সাব জোনাল অফিসের বিল এলাকাগুলোতে নৌযান দুর্ঘটনা এড়াতে সতর্কীকরণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ও দৃর্শ্যমান স্থানগুলিতে সাইন বোর্ড টাঙিয়ে দেওয়া ও মাইকিং করে সতর্ক করা হয়েছে।

ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিসের ‘দুর্যোগে আলোর গোরিলা’ টিম কর্তৃক গত পনেরো দিন ধরে তাদের অফিসিয়াল কাজের ফাঁকে উপজেলার বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ স্থান ও সম্ভাব্য দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এমন স্থানগুলিতে এই সতর্কীকরণ সাইন বোর্ড টাঙানো ও মাইকিং করে সতর্ক করা হয়।

পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খানমরিচ, দিলপাশার ও অষ্টমনিষা ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা চলনবিল অঞ্চলের অন্তর্গত হওয়াতে এবারের আগাম বন্যার কারণে ঐ সকল এলাকার বৈদুতিক খুঁটি গুলি অনেকাংশ পানির নিচে তলিয়ে গেছে। ফলে বৈদুতিক তার গুলি পানির কাছাকাছি চলে আসছে। এমতাবস্থায় নৌযান চালকদের অসতর্কতার ফলে যেকোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

তাই পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ভাঙ্গুড়া সাব জোনাল অফিস ‘দুর্যোগে আলোর গোরিলা’ টিম কর্তৃক ঐ সকল চিহ্নিত স্থানে লাল নিশান টাঙানো, খানমরিচ, দিলপাশার ও অষ্টমনিষা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও নৌকার মাঝিদের সাথে মতবিনিমিয় কর। তাদের দুর্ঘটনা এড়িয়ে চলার বিষয়টি অবগত করে সতর্ক করা, মাইকিং করা ও জন গুরুত্বপূর্ণ দৃর্শ্যমান স্থান সমূহে সতর্কীকরণ সাইনবোর্ড টাঙানো হয়েছে।

এরই মধ্যে বিলাঞ্চলের কৃষি কাজে ব্যবহৃত সেচ পাম্পগুলির লাইন বিছিন্ন করে সে গুলিকে নিরাপদ স্থানে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চলনবিল অঞ্চলের এই এলাকাগুলোতে বর্ষা মৌসুমে বিভিন্ন স্থান থেকে নৌযান নিয়ে আগত পর্যটক ও যাত্রী নিয়ে চলাচল কারী নৌযানের মাঝিদের অসতর্কতার কারণে বিগত বছরগুলোতে কখনো কখনো দুর্ঘটনা ঘটে থাকত।

এবিষয়ে পাবনা পল্লী বিদ্যুৎ-১ এর ভাঙ্গুড়া সাবজোনাল অফিসের এজিএম মোঃ মনির হোসেন বলেন, বিলাঞ্চলে বৈদ্যুতিক তারের সাথে আর একটি দুর্ঘটনাও যেন না ঘটে সে কারণে পর্যটকদের নৌযান ও যাত্রী বহনকারি নৌযান চালকদের সতর্ক করার লক্ষ্যে নিয়মিত মাইকিং, জনগুরুত্বপূর্ণ দৃর্শ্যমান স্থান সমুহে সতর্কীকরণ সাইনবোর্ড ও লাল কাপড় টাঙানোর পাশাপাশি মাঝিদের সাথে বৈঠক করে তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *