লালপুরে বাঁকীতে ঔষধ বিক্রি না করায় পল্লী চিকিৎসকের নামে ধর্ষন মামলা

নাটোর জেলা প্রতিনিধি:
নাটোরের লালপুরে বাঁকীতে ওযুধ বিক্রি না করায় পল্লী চিকিৎসকের নামে ধর্ষনের অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের।
স্থানীয় ও মামলা সুত্রে জানা যায়, লালপুরের বিলমাড়ীয়া বাজারে গরিবের ডাক্তার নামে পরিচিত, বিলমাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোমিনুল ইসলাম মোমিনের দোকানে গত ১৭ আক্টোবর মোহরকয়া নতুনপাড়া গ্রামের কারন প্রাং তার স্ত্রী সেলিনা বেগম (২২) চিকিৎসা নিতে আসে এবং বাঁকীতে ওযুধ চায়। বাঁকীতে ওযুধ না দেওয়ায় সেলিনা ও তার স্বামী কারন প্রাং ক্ষিপ্ত হয়ে মোমিনকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। গত ১৯ আক্টোবর সেলিনা বেগম বাদী হয়ে নারি ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্র্যাইবুনাল, নাটোরে মামলা দায়ের করেন। মামলার বিবরণে বাদী সেলিনা বলেন, গোপালপুর বেসরকারি কসমস হাসপাতালে আয়ার চাকরি দেওয়ার নামে বিলমাড়ীয়া বাজারে অবস্থিত মোমিন মেম্বারের নিজস্ব চেম্বারে ডেকে নিয়ে ঔষধ খাওয়ায়ে আমাকে ধর্ষন করে।

বিবাদী মোমিন মেম্বার বলেন, বাঁকীতে ওযুধ বিক্রি না করায় প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য তারা চক্রান্ত করে আমার নামে আদালতে ধর্ষনের মামলা করেেছ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *