ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার শামীম করোনা আক্রান্ত নন, অন্য রোগে আশঙ্কাজনক

নিউজ ডেস্ক

#ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) এবং ঈশ্বরদী আলো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের স্বত্তাধিকারী ডা. শফিকুল ইসলাম শামীম করোনা রোগে আক্রান্ত নন। গতকাল শনিবার (৬ জুন) রাতে তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।তবে অন্য রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আসমা খান
করোনা মহামারি শুরুর পর থেকেই ডা. শামীম নির্ভয়ে দিয়েছেন করোনা সন্দেহে হাসপাতালে আসা ব্যক্তিদের চিকিৎসা সেবা। এছাড়াও নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক থেকে নিয়মিত স্বাস্থ্য সচেতনামূলক পোস্ট দেন। কেউ যেন এই রোগে ভীতস্থ হয়ে না পড়েন এবং চিকিৎসাসহ যে কোনো পরামর্শ গ্রহণের জন্য নিজের মুঠোফোনের নম্বরটিও পোস্ট করেন। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অন্যান্য চিকিৎসকদের মধ্যে করোনা চিকিৎসক হিসেবে সকলের কাছে পরিচিত হয়ে উঠেন তিনি।
যখন এমনই হচ্ছিল তখন আচরণ বিধিবাম সেই চিকিৎসকই শ্বাসকষ্ট নিয়ে জীবন সংকটে পড়েছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে ভর্তি করা হয় পাবনা বিশেষায়িত করোনা হাসপাতালে। কিন্তু শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় শনিবার (৬ জুন) রাতে অ্যাম্বুলেন্স করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তাঁর পরিবার।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও থানা সূত্রে জানা যায়, ডাক্তার শফিকুল ইসলাম শামীম খুবই জনপ্রিয় মানুষ। তিনি রাশিয়া থেকে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন, ভাষা জানেন। এই জন্য রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত রাশিয়ান নাগরিক ও সেখানকার শ্রমিকদের করোনা নমুনা সংগ্রহের বেশির ভাগ কাজই করতেন ডাক্তার শামিম। এরই মধ্যে তিনি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে উপজেলাব্যাপী বিভিন্ন মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়ে তিনি করোনা আক্রান্ত। শুক্রবার (০৫ জুন) তার মা মারা গেলেও তার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য জমা দেওয়া হয়।
পাবনা জেলা ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. আবু জাফর জানান, মায়ের মৃত্যুর খবরের পর ডাক্তার শামীমের শ্বাসকষ্ট পূর্বের চেয়ে বেড়ে যায়। সে সময় তাকে বাড়িতে রেখেই অক্সিজেন দেওয়া হয়। কিন্তু তার অবস্থা ক্রমেই অবনতি হওয়ায় শনিবার দুপুরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনা নিয়ে আসা হয়।
এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও পাড়ায়-মহল্লায়, হাট-বাজারে কিংবা চায়ের দোকানে মানুষের মুখে মুখে আলোচনার কেন্দ্রে তার নাম শোনা যাচ্ছে ডাক্তার শামিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন—এমন গুজব ও বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। তবে তিনি এ ধরনের ভাইরাসে আক্রান্ত হননি এ বিষয়টি পরিস্কার হয় গতকাল রাতে তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসার মাধ্যমে। কথাগুলো বলেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এফ এ আসমা খান।
ডাক্তার শামীমের মালিকানাধীন আলো ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ম্যানেজার আব্দুল হাকিম কিছুক্ষণ পূর্বে (আজ সকাল ১০ টায়) জানান, ডা. শামীমের শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তিনি বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেলের আইসিইউতে আছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চলছে কিন্তু এয়ার এ্যাম্বুলেন্স না পাওয়ায় ঢাকাতে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তিনি সকলের কাছে ডা. শফিকুল ইসলাম শামীমের জন্য দোয়া কামনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *