সিঙ্গাপুর প্রবাসীরা আজ পদে পদে হয়রানি

যারা ip নিয়ে সিংঙ্গাপুরে যাবেন তাদের জন্যে জরুরি নিউজ ঃ- যা আমার বেলায় হয়েছে গত কয়েক মাস হলো আমি সিংঙ্গাপুর থেকে দেশে এসেছি, এখন আমি আবার সিংঙ্গাপুরে যাব pdppঅধিনে ip হয়েছে, সিংঙ্গাপুর থেকে দেশে আসার আনুমানিক ৭ মাসে আগে আমি আমার পাসপোর্ট নবায়ন করাই বাংলাদেশ হাইকমিশন কর্তৃক। গত ২ দিন আগে আমি BMET ফিঙ্গারপ্রিন্ট করার জন্য আমার জেলা সদরে যাই, ওখানে এখন অনলাইনে টাকা জমা নেয় বৈদেশিক কর্মসংস্থান ব্যাংকের নিধারিত টাকা। আমি ও সকলের মত লাইনে দারিয়ে গিয়ে টাকা এবং আমার পাসপোর্ট ডকুমেন্টস দিলাম, আমি পূর্বে ছিলাম সিংঙ্গাপুরে, তারপর সে আমার পাসপোর্ট নিয়ে আমাকে বলল, আমি কোথায় পাসপোর্ট বানিয়েছেন, আমি বললাম বাংলাদেশ হাইকমিশন সিংঙ্গাপুরে, সে বললেন আপনার পাসপোর্ট পারসোনাল ডাটা ইনফরমেশন অনলাইনে নেই, এটা ছাড়া আমরা আপনার টাকা নিতে পারছি না, আপনিও আজ ফিঙ্গার করাতে পারবেন না।আমি বললাম এখন আমি কি করতে পারি, সে আমাকে বলল শুধু আপনি নন আপনার মত অনেক প্রবাসী এখন এ সমস্যা ফেজ করছে। কিছুখন পর দেখলাম আমার মত আরেকজন ব্যাক্তি, সৌদি আরব থেকে পাসপোর্ট নবায়ন করেছে সে ও আমার মত সমস্যা, তারপর আমরা তাদের জিজ্ঞেস করলাম কি করা যায়, তারা বলল আপনারা ঢাকা আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে চলে যান। সেখানে দিয়ে ঠিক কয়ে নিয়ে আসেন। আমরা বললাম জেলা পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে দেখে আসি, তারা বলল কোন কাজ হবে না। তাদের কথা না শুনে আমরা ২ জনে চলে গেলাম জেলা পাসপোর্ট অফিসে, সে গেটের সিকুরিটিকে বললাম এ সমস্যা, সে বলল আপনি ১০৩ নাম্বারে চলে যান, তারপর আমারা সেখানে দীর্ঘ লাইন ধরে সামনে গিয়ে অফিসার কে বললাম আমার সমস্যার কথা, সে বলল, আপনি ১০৭ তে আমাদের স্যারের কাছে যান, সেখানে গিয়ে ও দীর্ঘ লাইন দিয়ে সামনে গেলাম, এবং আমার পাসপোর্ট সমস্যার কথা বললাম, আমাকে বলল আপনি আগারগাঁও ৪ তলায় চলে যান। তারপর আর কি করা, মনের দুঃখে চলে আসলাম। আর ভাবলাম কোন দেশে আমাদের জন্ম হয়েছে, সব জায়গায় দুনীতি অনিয়ম। কি আর করা ভাবলাম জেলা পাসপোর্ট অফিসে নিজে গিয়ে কাজ হল না। আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে গিয়ে আমি কি পারবো আমার কাজ সমাধান করতে। যথারীতি বাড়িতে চলে আসার সময় মনে হলো, আমার এক ছোট ভাইয়ের কথা, তার পাসপোর্ট কয়েকমাসে আগে নামের সমস্যা হয়েছিল। তা সে কারো মাধ্যমে তা ঠিক করিয়াছে, তাকে কল দিলাম, তার পর সে একটা নাম্বার দিলো, এবং তার সাথে দেখা করলাম। সে বলল ভাই এটা ছোট বিষয় কিন্তু বাংলাদেশ বলে কথা টাকা ছাড়া কিছুই হয় না। সে বলল ২০০০ টাকা দিয়ে যান, আগামীকাল আপনি ভোরে আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে চলে যান। রাতে আপনাকে কল করে নাম্বার দিব অফিসে দিয়ে সেই অফিসারের নিকট দেখা করবেন এবং আপানার সমস্যার কথা বলবেন। যথারীতি খুবভোর উঠে চলে গেলাম আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে, গিয়ে লাইনে দারিয়ে গেলাম, তারপর প্রায় ৪ ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে অফিসে গিয়ে পৌছালাম।তার সেই অফিসারের নিকট গিয়ে বললাম , সে বললেন আপনার পাসপোর্ট তো সিংঙ্গাপুর থেকে বানানো এটাতো তাদের সমস্যা। আমি বললাম সিংঙ্গাপুরে তো পাসপোর্ট বানায় না, এটাতাো বাংলাদেশে থেকে বানিয়ে সিংঙ্গাপুরে আমাদের দূতাবাসের মাধ্যমে দেয়। তারপর আমাকে বলল আপনার পাসপোর্ট দেন। আমি পাসপোর্ট তাকে দিলাম, সে আমার পাসপোর্ট কালার প্রিন্ট করে বলল, আপনি চলে যান, আপনি যার মাধ্যমে আসছেন তার সাথে আমি কথা বলবো, আপনার কাজ হয়ে যাবে। আমি চলে আসলাম, গাড়িতে থাকা কালিন সে আমার আগের লোক যার মাধ্যমে আগারগাঁও গিয়েছিলাম সে আমাকে কল করে বলল আরো ৩০০০ টাকা লাগবে, বিকাশ করুন আগে দিলাম ২ হাজার, আর এখন দিলাম ৩ হাজার, তারপর বললেন রাতে আপনাকে কল করে জানাবো। তারপর রাতে আমাকে কল করে বললেন আপনার পাসপোর্ট অনলাইন ডাটা ইনফরমেশন ঠিক হয়ে গেছে।এখন আমার প্রশ্ন ১৫৫ ডলার খরচ করে সিংঙ্গাপুর থেকে পাসপোর্ট নবায়ন করলাম। আবার সেই পাসপোর্টে আইপি ও হয়েছে, সিংঙ্গাপুরে থেকে আসার সময় সেই পাসপোর্ট দিয়েও আসলাম, এখন এটা কাদের সমস্যা বাংলাদেশ হাইকমিশন না আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিস ঢাকা???? এই যে একটা হয়রানি এটার দায়সুধু কি প্রবাসীদের নিতে হবে,,,,,,,,,?????

সজল দাশ, সিঙ্গাপুর প্রবাসী।

সুত্রঃ আমরা সিঙ্গাপুর প্রবাসী বাংলাদেশি পেজ থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *