বরগুনায় ব্রিজ দুর্ঘটনা, ২ তদন্ত কমিটি গঠন

বরগুনায় আমতলীতে ব্রিজ ভেঙে খালে পড়ে ৯ জন নিহতের ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সোমবার (২৪ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম।

 

জানা যায়, শনিবার (২২ জুন) অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনিমেষ বিশ্বাসকে প্রধান করে ছয় সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন বরগুনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর আরেকটি তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে। যার প্রধান পটুয়াখালী তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মহির উদ্দিন শেখ।

 

জেলা প্রশাসক কর্তৃক গঠিত কমিটিতে ম্যাজিস্ট্রেট অনিমেষ বিশ্বাস ছাড়াও আরও রয়েছেন আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আশরাফুল আলম, সহকারী পুলিশ সুপার (আমতলী সার্কেল) রুহুল আমিন, এলজিইডির বরগুনার নির্বাহী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান খাঁন, বিআরটিএ সহকারী পরিচালক মাহফুজ আহমেদ, ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক জাহাঙ্গির আলম।

অপরদিকে স্থানীয় সরকার কর্তৃক গঠিত কমিটিতে প্রকৌশলী মহির উদ্দিন শেখ ছাড়াও আরও রয়েছেন- নির্বাহী প্রকৌশলী এসি অফিস বরিশালের নুরুস সাম ও এলজিইডি বরগুনা সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান।

 

তদন্ত কমিটির বিষয়ে বরগুনা জেলা প্রশাসক মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে ছয় সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কার্যদিবসের মধ্যে তাদের অনুসন্ধানপূর্বক প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। এ ছাড়াও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরও একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত কমিটিগুলোর প্রতিবেদনের আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

এর আগে শনিবার (২২ জুন) দুপুরে বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া-চাওড়া সীমান্তবর্তী চাওড়া হলদিয়া খালের ওপর লোহার সেতু ভেঙে মাইক্রোবাস ও অটোরিকশা পানিতে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় মোট ১২ জন নারী-পুরুষের মধ্যে ৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। শনিবার গভীর রাতে আমতলী থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা চেইন কপ্পা দিয়ে নদীতে ডুবে যাওয়া মাইক্রোবাসটি উদ্ধার করে।